জানে না মায়ের মৃ;ত্যুর কথা, নামাজের কাঁদ;ছেই আরিফা

রাজধানীর মোহাম্মদপুরের নবোদয় হাউজিং এলাকায় পোশাককর্মী আয়শা সিদ্দিকাকে কু;পিয়ে হত্যার অভিযোগ ওঠে এক ট্রাকচালকের বিরুদ্ধে। শুক্রবার সকালে এ ঘ;টনা ঘটে। ঘটনার পরপর অভিযুক্ত সেকুল মিয়াকে ধরে পুলিশে দেন স্থা;নীয় লোকজন। পুলিশ জানায়, সাবেক স্ত্রীকে হ;ত্যা করতে গিয়ে ভুলে আয়;শাকে কুপি;য়েছেন বলে স্বী;কার করেছেন সেকুল।

এদিকে, মা আয়শা সিদ্দিকার নি;হতের কথা জানে না পাঁচ বছর বয়সী মেয়ে আরিফা। প্রতিদিনের মতো মোবাইলে ভাত খেতে বলেনি বলে রাতে ভাত খায়নি শিশু আরিফা। সে জানে তার মা হাস;পাতালে চিকিৎসাধীন। মা ফিরবে সেই আশায় তাকিয়ে আছে মে;য়েটি। স্থানীয় ব্র্যাক স্কুলের প্রথম শ্রেণির শি;ক্ষার্থী আরিফা বলে, বৃহস্পতি;বার রাতে মা বলেছিল- পাঁচ মাস পর ঈদের সময় বাড়ি আ;সবেন। আমার জন্য সাইকেল ও চক;লেট নিয়ে আসবেন। কিন্তু মা নাকি আজ;ই বাড়ি ফিরবেন। মা অসুস্থ, মায়ের জন্য নামাজ পড়ে দোয়া করেছি। মা সুস্থ হয়ে যাবে। মা এলে ভাত খাবো।

আয়শা সিদ্দি;কার বাবা ৫৫ বছর বয়সী মালেক মাছুয়া বলেন, ছুটিতে আসার পর মে;য়েকে ঢাকায় যেতে বার;ণ করেছিলাম। কিন্তু শোনেনি। সেদিন আমার কথা শু;নলে হয়তো এমনটি হতো না। আয়শা সিদ্দি;কার মামি সুবর্ণা বলেন, আয়শা সিদ্দিকা হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর থেকে তিন দফায় ৪৬ হাজার টাকা বিকাশের মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে। হাসপাতালে সম্ভবত আয়;শার বড় বোন খালেদা প্রতার;ক চ;ক্রের হাতে পড়েছিল। সরকারি হাসপা;তালে একদিনে এত টাকা কেন খরচ হবে। শনিবার দুপুরেও ছয় হাজার টাকা পাঠানো হয়েছে।

বিরল থানার ওসি মো. ফখরুল ইসলা;ম বলেন, স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছে;দের পর আয়শা সিদ্দিকা বাবার বাড়ি;তে থাকতেন। এক বছর আগে তিনি ঢাকায় গা;র্মেন্টসে চাকরি নেন। ম;রদেহটি রোব;বার সকালে এসে পৌঁছেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.