তদন্ত করতে গিয়ে নারীর সাথে সখ্য, গোয়ালঘরে আপত্তিকর অবস্থায় আটক

পারিবারিক মামলার এক বাদীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় স্থানীয়দের হাতে আট;ক হয়েছেন তোফাজ্জল হোসেন নামে এক পুলিশের সহকারি উপ-পরিদর্শক (এএসআই)।

শুক্রবার (২৯ অক্টোবর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে গাইবান্ধার জেলার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ছড়ারপাতা গ্রামে এ চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটে। আটক এএসআই তোফাজ্জল হোসেন (৩৮) উপজেলার কঞ্চিবাড়ি পুলিশ ত;দন্ত কেন্দ্রে কর্মরত রয়েছেন।

স্থানীয় সূত্র জানা যায়, রাতে ওই এএসআই ছড়ারপাতা গ্রামের এক সৌদি প্রবাসীর বা;ড়িতে আসেন। পরে গোয়ালঘরে আ;পত্তিকর অবস্থায় ওই আড়ির এক না;রীর সঙ্গে তাকে দেখে ফেলেন প্রতিবেশী। বিষয়টি জানাজানি হলে উত্তে;জিত জনতা তোফাজ্জলকে আ;টক করে বাড়ির উঠানের একটি আম গাছের সঙ্গে দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখে। পরে খবর দেয়া হয় পুলি;শে।

খবর পেয়ে সুন্দরগঞ্জ থানা পুলি;শ ও কঞ্চিবাড়ি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনা;স্থলে যান।

ওই নারীর এক প্রতি;বেশী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, কিছুদিন আগে ওই নারীর স্বামীর সঙ্গে তার ভা;ইয়ের জমি নিয়ে বি;রোধ দেখা দেয়। পরে ওই নারী বাদী হয়ে থানায় মা;মলা করেন ভাসুরের বিরুদ্ধে। ওই মামলাটির ত;দন্তভার পড়ে এএসআই তোফাজ্জল হোসেনের কাছে। পরব;র্তীতে তদন্তে গিয়ে ওই প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে সখ্য;তা গড়েন তিনি।

তবে ওই নারীর দাবি, তো;ফাজ্জল হোসেনের সঙ্গে তার কোনো সখ্য বা প্রে;মঘটিত কোনো বিষয় নেই। পূর্ব পরিচিতির কারণে রাতে তাকে বাসা;য় দাওয়াত করেছিলেন তিনি। ঘটনার সত্যতা নি;শ্চিত করেছেন কঞ্চিবাড়ি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্য মানষ রঞ্জন। তিনি বলেন, আমরা খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠি;য়েছি।

সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহিল জামান বলেন, অভিযোগ পেয়ে;ছি। তদ;ন্ত শেষে বিস্তারিত জানানো হবে। সত্যতা পাওয়া গেলে তোফাজ্জ;লের বিরুদ্ধে আই;নগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.