ভাতিজা করলেন পরকীয়া, প্রা;ণ গেল চাচার

বগুড়ার পালশার ড্রাইভার হাসান সরকার হ;ত্যাকা;ণ্ডের প্রধান আসা;মি তার ভাতিজা রুপম সরকারকে ঢাকা থেকে গ্রে;ফতার করেছে পুলিশ। তবে এ ঘটনার অপর আ;সামি রুপমের স্ত্রী খুশী বেগম এখনো পলা;তক রয়েছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপশহর ফাঁড়ির ইন;চার্জ ইন্সপেক্টর আব্দুর রশিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে বুধবার (৩ নভেম্বর) দুপুরে রুপম হ;ত্যার দায় স্বীকার করে অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহমেদ শাহরিয়ার তারিকের আদালতে স্বীকারো;ক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছেন। পরে আদালত তাকে কা;রাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

জানা গেছে, রুপম সরকারের সঙ্গে চাচাতো বোনে;র পর;কীয়া প্রে;ম ছিল। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে দুই পরিবারের মধ্যে বিরোধ বাধে। এ নিয়ে এলাকায় সালিশ বৈঠ;কও বসে। কিন্তু সালিশ বৈঠকে বিষয়টি নিষ্পত্তি না হওয়ায় দুই পরি;বারের মধ্যে বিরোধ লেগেই থাকে।

এর জের ধরে গত ১৬ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ১১টার দিকে সদরের পালশা এলাকায় চাচা হাসান সরকারকে ধারা;লো অ;স্ত্র দিয়ে কো;পান রুপম। এ সময় গু;রুতর আহ;ত হলে লোকজন তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে সেখান থেকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকে;ল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকি;ৎসাধীন অবস্থায় গত ১৮ সেপ্টেম্বর হা;সান সরকার মারা যান।

ইন্সপেক্টর আ;ব্দুর রশিদ জানান, ঘটনার পর থেকেই রু;পম ঢাকায় আ;ত্মগো;পনে ছিলেন। পরে গত মঙ্গলবার ঢাকার টিকা;টুলিতে অ;ভিযান চালিয়ে রুপ;মকে গ্রেফ;তার করে বগুড়ায় আনা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.