যে কারণে হেলিকপ্টার নামল প্রত্যন্ত বিলবাড়ি গ্রামে

জীবনে প্রথমবার হেলিকপ্টার দেখে গ্রামের সবাই হতবাক। সবার মনেই প্রশ্ন- কী কারণে হেলিক;প্টার এলো রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার শুভডাঙ্গা ইউনিয়নের প্র;ত্যন্ত গ্রাম বিলবাড়িতে।

সবার কৌতুহল নিবৃত করলেন ঐ গ্রামের ছেলে ইলে;কট্রনিক্স ব্যবসায়ী আবুল হোসেন আকাশ। ভিশন ইলেকট্রনি;ক্সের ডিলার হিসেবে সারাদেশে শীর্ষ বিক্রেতা হওয়ায় তাকে সংবর্ধ;না দিচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। এ কারণে আবু;ল হোসেন আকাশকে হেলিকপ্টারে করে কক্সবাজারের একটি বিলাসবহুল রিসোর্টে নেয়া হ;চ্ছে। সেখানেই দেওয়া হবে সং;বর্ধনা।

জানা গেছে, ব্যবসায়ী আবুল হোসেন আ;কাশ ভিশন ইলেকট্রনিক্স পণ্যের একজন ডিলার। পণ্য বিক্রয়ে সারাদেশে দ্বিতীয়বারের মতো শীর্ষস্থান অর্জন করেছেন তিনি। এ কারণে প্রতিষ্ঠা;নটির পক্ষ থেকে তাকে হেলিকপ্টারে করে কক্স;বাজারে নিয়ে সংবর্ধ;না দেওয়া হবে। বিলবাড়ি গ্রামের তফিজ উদ্দীনের ছেলে আবুল হোসেন আকাশ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে অনার্স এবং মাস্টার্স শেষ করেছেন। লেখাপড়া শে;ষ করে সোজা গ্রামেই চলে আসেন। নিজের পায়ে দাঁ;ড়াতে ২০১৫ সালে স্থানীয় মচমইল বেল;তলা মোড়ে আকাশ ইলেকট্রনিক্স নামে একটি প্র;তিষ্ঠান দিয়ে ব্যব;সা শুরু করেন।

২০১৯ সালে তুবা ইলেকট্র;নিক্স নামে আরেকটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান চালু করেন আবুল হোসেন আকাশ। এরপর প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের ভিশন ইলেকট্রনিক্সের ডিলার;শিপ। ঐ বছরই সারাদেশে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে তুবা ইলে;কট্রনিক্স। পরের বছর উঠে আসে শী;র্ষস্থানে। এরপর কোম্পানির পক্ষ থেকে হেলিকপ্টারে করে আকা;শকে সিলেটে নিয়ে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। চলতি বছর আবারো দেশসেরা হয় তুবা ইলেকট্রনি;ক্স। এ কারণে এবার আবুল হোসেন আকা;শকে কক্সবা;জারের নিয়ে যাওয়া হয় সংব;র্ধনা দিতে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ক্ষু;দ্র ব্যবসায়ী আকাশের এ প্রতিষ্ঠা;ন মাত্র ছয় বছরে বৃহৎ পরিসরে কার্য;ক্রম শুরু করেছে। তার প্রতিষ্ঠানে কর্মসংস্থা;ন হয়েছে ২০ জনের। সফল ব্যবসায়ী আবুল হোসেন আকাশ বলেন, আজকের এ সফ;লতা শুধু আমার একার নয়, আমার প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত প্র;ত্যেক কর্মকর্তা-কর্ম;চারীর। আগামীতে ব্যবসার পরিধি আ;রো বাড়া;তে সবার সহ;যোগিতা ও দোয়া চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.